নবীর (স) জন্য পু’লিশেরও মন কাঁ’দে, কিন্তু হাত-পা বাঁ’ধা : এএস’পি সালেহউদ্দিন

নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাফিক পু’লিশের সিনিয়র এএস’পি সালেহউদ্দিন আহমেদ মনে দুঃখ নিয়ে একটি ফেইসবুক স্টেটাস দেন তো চলুন দেখে নাই সেই স্টেটাস ”
ভোলার ঘটনার পর কিছু সংখ্যক মানুষের প্রতিক্রিয়া দেখে মনে হচ্ছে পু’লিশ সকল অ’পরাধের অ’পরাধী। মনে হচ্ছে পু’লিশ মহানবীকে নিয়ে ক’টূক্তি করেছে। পু’লিশ অ’পরাধীদের বাঁ’চানোর চেষ্টা করছে। পু’লিশ এ ঘটনার জন্ম দিয়েছে। পু’লিশ চারজন নিরপরাধ মানুষকে শুধু শুধু হ’ত্যা করেছে।”

প্রথম দিন স্টেটাস দেয়ার পর তিনি পরের দিন আবার তার দ্বিতীয় স্টেটাস দেন তার ফেইসবুক প্রোফাইল এ যে
‘ভোলার ঘটনার পর কিছু সংখ্যক মানুষের প্রতিক্রিয়া দেখে মনে হচ্ছে পু’লিশ সকল অ’পরাধের অ’পরাধী। মনে হচ্ছে পু’লিশ মহানবীকে নিয়ে ক’টূক্তি করেছে। পু’লিশ অ’পরাধীদের বাঁ’চানোর চেষ্টা করছে। পু’লিশ এ ঘটনার জন্ম দিয়েছে। পু’লিশ চারজন নিরপরাধ মানুষকে শুধু শুধু হ’ত্যা করেছে।’

আমাদের অধিকাংশ পুলিশ ই হচ্ছে মুসলিম ধর্মালম্বী। তাদের ও মন কাঁদে যখন কেউ আমাদের নবীজিকে নিয়ে কটূক্তি করে। তারাও চায় তাদের বিচার করতে কিন্তু তারা পারে না। কারণ তাদের হাত পা বাধা। কারণ তারা আইনের চাকরি করে তাই আইন জানে ও মানে।

মেজিস্টেড এর নির্দেশেই কিন্তু পুলিশ গুলি করে কিন্তু পুলিশ যেহেতু দৃশ্যমান প্রতিনিধিত্ব করে তাই পুলিশ এর গুলি করলেও বিপদ আবার না করলেও বিপদ।

তিনি বলেন যদি পুলিশ সাধারণ জনতার হাতে মার্ খায় তখন ওরা বলবে পুলিশ কি করে ওদের হাতে অস্র থাকা সত্ত্বেও সাধারণ জনগণের হাতে মার্ খেয়ে আসে। ওদের বেতন দিয়ে পেলে লাভ তা কি ? আবার গুলি করে মানুষ মারলেও বিপদে পড়তে হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *